ঢাকা, বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

কোরবানি ঈদে কোন দেশে কোন পশু ?

বিবিধ ডেস্ক
কোরবানি ঈদে কোন দেশে কোন পশু ?
Advertisement (Adsense)

কোরবানি শব্দটি এসেছে ‘কুরব’ থেকে, যার অর্থ নৈকট্য, সান্নিধ্য ও নিকটবর্তী হওয়া। কোরবানির মাধ্যমে কোনো কিছু আল্ল­াহর নামে উৎসর্গ করে তার নিকটবর্তী হওয়া। এ লক্ষ্যে গরু, ছাগল, ভেড়া, মহিষ, উট, দুম্বা, বকরি ও বনগরু।
কোরবানির ঈদের সময় এসব পশু মুসলিম দেশগুলোর কোরবানির চাহিদা মেটাচ্ছে। ভারত ও নেপাল থেকে কোরবানির পশু আসছে বাংলাদেশ ও পাকিস্তানে। মিয়ানমার, থাইল্যান্ড থেকেও বাংলাদেশে কোরবানির পশু আসছে।

এর মধ্যে বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি কোরবানি দেওয়া হয় গরু, এর পরই রয়েছে ছাগল ও মহিষ। বর্তমানে উট, দুম্বাও কেউ কেউ কোরবানি দেন। পাকিস্তানে বাংলাদেশের মতো এসব প্রাণী কোরবানি দেওয়া হয়। তবে তারা সবচেয়ে বেশি কোরবানি দেন ভেড়া। প্রতিবেশী দেশ ভারতে গরু কোরবানি দেওয়া হয় কিছু রাজ্যে। তবে ছাগল ও উট কোরবানি দেওয়া হয়। সৌদি আবরসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোয় বেশি কোরবানি দেওয়া হয় উট ও দুম্বা। আফগানিস্তানে দেওয়া হয় ভেড়া ও খাসি। পাকিস্তান ও আফগানিস্তানে অনেকটা খাসির মতো এক ধরনের গৃহপালিত প্রাণী আছে, যেগুলোকে স্থানীয় ভাষায় বকরি বলে। ওই দুই দেশে এগুলো কোরবানির পরিমাণও বেশি।
মালদ্বীপে কোরবানির তালিকায় এগিয়ে রয়েছে মহিষ। ইউরোপের বিভিন্ন দেশে কোরবানি দেন গরু কিংবা ভেড়া। অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে কোরবানির তালিকায় সবচেয়ে বেশি সমাদৃত গরু। এর পরই রয়েছে ছাগল।
আফ্রিকার কিছু দেশে বড় জাতের বনগরু গৃহপালিত পশু রয়েছে। সেগুলোকে তারা কোরবানি দেন।

আরও পড়ুন

Advertisement (Adsense)