ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০, ১৪ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

পদোন্নতি হলে আপনি যা যা করবেন

বিবিধ ডেস্ক
পদোন্নতি হলে আপনি যা যা করবেন
সংগৃহীত : ছবি
Advertisement (Adsense)

পদোন্নতি প্রতিষ্ঠানে কর্মী ধরে রাখার অন্যতম একটি কৌশল। সুযোগ-সুবিধা বাড়িয়ে কর্মীদের নতুন দায়িত্ব তুলে দেওয়া হয়। এতে কর্মী অনুপ্রাণিত হন, আবার পদোন্নতির মধ্য দিয়ে প্রতিষ্ঠানের যোগ্য কর্মীদের প্রতিষ্ঠান ছেড়ে যাওয়ার হার কমিয়ে আনা হয়। তবে সবকিছুর ঊর্ধ্বে সৎ, পরিশ্রমী কর্মীদের পুরস্কৃত করাই হচ্ছে মূল উদ্দেশ্য।

পদোন্নতি আমাদের জীবনে অনেক আনন্দঘন মুহূর্তের কারণ হলেও অনেক সময় পদোন্নতির জন্য সহকর্মীদের সঙ্গে দূরত্ব বেড়ে যায়। বছরের পর বছর একসঙ্গে এক পদে কাজ করেছেন, কিন্তু আপনি পদোন্নতি পেয়ে পরের ধাপে চলে গিয়েছেন। সহকর্মীদের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা হয়েছেন। হয়তো আপনার সঙ্গেই আরেকজন সহকর্মীর ‘ইঁদুর দৌড়’ ছিল এক পদের জন্যই। শেষ পর্যন্ত আপনি জয়ী হয়েছেন। পদোন্নতির পর হয়তো আবিষ্কার করছেন সহকর্মীরা আপনাকে নিয়ে কানাঘুষা করছেন অফিসে। পদোন্নতির কারণে অনেকেই আপনার ওপরে মনঃক্ষুণ্ন হয়ে আপনার থেকে দূরে থাকছেন, ঠিকমতো কথা বলছেন না। যদিও আপনার পদোন্নতিতে যথেষ্ট কারণ থাকা সত্ত্বেও অনেকেই মনে করছেন আপনার পদোন্নতি পাওয়া উচিত হয়নি।

কর্মস্থলে এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি হলে কী করা উচিত ঠিক ভেবে পাই না আমরা অনেকেই। ইচ্ছা করলেও সেই সহকর্মীদের এড়িয়ে চলা সম্ভব না। কারণ, সহকর্মীদের সঙ্গে আপনার প্রতিদিন দেখা হবে, বিভিন্ন ধরনের কাজ একসঙ্গে করতে হবে। তাই তাঁদের এড়িয়ে যাওয়া বোকামি। আপনাকে আপনার দায়িত্ব ঠিকঠাক পালন করার জন্য হলেও এসব পরিস্থিতির মুখোমুখি হতে হবে।

এ ব্যাপারে বেশ কিছু পরামর্শ দিয়েছেন বেসরকারি প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ইউওয়াইএস ল্যাবের চেয়ারপারসন ফারহানা এ রহমান। পাশাপাশি তিনি বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)-এরও জেষ্ঠ্য সহসভাপতি। তিনি বলেন, প্রথমত আপনার যে সহকর্মী পদোন্নতি পাননি কিন্তু আপনার পদোন্নতির কারণে তিনি মনঃক্ষুণ্ন হয়েছেন, তাঁর সঙ্গে সরাসরি কথা বলুন। তাঁর ভালো দিক এবং শক্তির জায়গা নিয়ে কথা বলুন। তাঁকে বোঝানোর চেষ্টা করুন যে তিনিও যথাসাধ্য চেষ্টা করলে অবশ্যই তাঁর পদোন্নতি হবে। ফারহানা রহমান আরও বলেন, পদোন্নতি হচ্ছে একটি সামগ্রিক বিষয়। অনেক সময় আমাদের প্রেজেন্টেশন স্কিলের ঘাটতি থাকার কারণে কাজগুলো প্রতিষ্ঠানের মালিক কিংবা ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা পর্যন্ত পৌঁছায় না।

আর পদোন্নতির পরে কেউ কথা না বলতে চাইলেও আপনি বারবার তাঁর কাছে যাবেন। তাঁর ব্যবহারে কষ্ট পাবেন না। নিজের কাজ আরও নিষ্ঠার সঙ্গে করতে হবে, যাতে তিনি উপলব্ধি করতে পারেন কেন আপনি তাঁদের থেকে এগিয়ে গেছেন। আর যদি সেই উপলব্ধিও না হয়, তাহলে অযথা তাঁকে বোঝানোর চেষ্টা না করাই ভালো। সহকর্মীদের ব্যর্থতার দায়ভার তাঁকে নিতে দিন। কর্মক্ষেত্রে প্রবেশের আগে বা যোগদানের আগে যথেষ্ট সহনশীল হওয়া উচিত।

আরও পড়ুন

Advertisement (Adsense)