ঢাকা, শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ঘরের সৌন্দর্যে দেয়াল ঘড়ি !!

গৃহসজ্জা ডেস্ক
ঘরের সৌন্দর্যে দেয়াল ঘড়ি !!
Advertisement (Adsense)

আমাদের প্রাত্যহিক জীবনে ঘড়ি একটি অত্যাবশকীয় আধুিনক যন্ত্র। কেননা আমােদর শোবার ঘরে ঝুলে থাকা ঘড়িটা ঠিক সময়ে টুং টাং আওয়াজ তুলে আপনাকে জানান দেয় সকাল হয়েছে। ঘুমের কোল ত্যাগ করে কাজের রাজ্যে আহ্বান জানানোর এই রীতিতে আপনিও বেশ অভ্যস্ত। আর তাই ঘরের দেয়ালে শোভা পায় নানা রঙের-ঢঙের দেয়াল ঘড়ি। ঘড়ি শুধু সময় দিতেই নয়, এখন ব্যবহার হচ্ছে রুচির বহুমূখী প্রকাশে। সৌন্দর্য সচেতনদের কাছে ঘর সাজাতেও যুগ যুগ ধরে ব্যবহার হয়ে আসছে নানা রকম ঘড়ি। পুরো পরিবারের সময় সচেতনতায় একটা ঘড়ি যথেষ্ট হলেও বাড়ির বিভিন্ন জায়গায় শোভা পেতে পারে এসব ঘড়ি। বসার ঘর, শোবার ঘর, পড়ার ঘর, অতিথি ঘর এমনকি রান্না ঘরেও থাকতে পারে রুচি সম্মত ডিজাইনের ঘড়ি।

ঘড়িকে একটু ভিন্নভাবে উপস্থাপন করে অন্দর রাজ্যে দৃষ্টিনন্দন আবহ তৈরি করা সম্ভব। আপনার রুচি-পছন্দ এবং ঘর সাজাতে শোপিসের আকারেও নানা রকম ঘড়ি বাজারে পাওয়া যায়। পুরাতন ঐতিহ্য ধরে রাখতে পেণ্ডুলামের আভিজাত্যময় ঘড়ি বসার ঘরে দারুণ মানায়। শৈল্পিক ভাবের প্রকাশ ঘটাতে কারুকার্য খচিত ঘড়িও ঠাঁই পেতে পারে। আপনার আভিজাত্য ফুটিয়ে তুলতে জাকজমকপূর্ণ ডিজাইনের ঘড়িও কম যায় না। অতিথি কক্ষের দেয়ালে মানায় স্নিগ্ধ রঙ আর তার মাঝে উজ্জ্বল রঙের নতুন ডিজাইনের কোনো ঘড়ি। বাড়ির পড়ুয়া ক্ষুদে সদস্যর ঘরে ঝুলিয়ে দিতে পারেন তার রুচি অনুযায়ী ঘড়ি। নিজেদের শোবার ঘরটিতে স্থান পেতে পারে সাদামাটা বা একটু আলাদা গোছের ঘড়ি। ঘরের সাজের ব্যাপারে যারা পুরাতন ঐতিহ্যকে প্রাধান্য দেন তারা দেয়ালে লাগিয়ে নিতে পারেন অ্যান্টিক ফিনিশ স্টেশন ওয়াল ক্লক।

কোনো একটি কক্ষে ঘড়ি ব্যবহার করার আগে তার পুরো পরিবেশকে প্রাধান্য দিন। ঘড়িটা দেয়ালে ঝুলানোর আগে মনে রাখতে হবে, এটি কোন ঘরের জন্য লাগানো হচ্ছে। সে ঘরে কোন বয়সের লোক থাকবে, তার পছন্দ বা ব্যক্তিত্ব কেমন, ঘরের আসবাবের রং কেমন হবে—এসব লক্ষ্য রেখে দেয়ালঘড়িকে ঘরের সাজে যথোপযুক্ত ব্যবহার করতে পারেন।

সাদামাটা দেয়াল ঘড়ির দাম পড়বে ২৫০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে। বসার ঘরের রুচি সম্মত ঘড়ির জন্য আপনাকে খসাতে হতে পারে ৫০০ থেকে কয়েক হাজার পর্যন্ত টাকা। রুচির সঙ্গে মিলিয়ে দৃষ্টিনন্দন শোপিস ধরণের ঘড়িগুলো পেয়ে যাবেন বেশ সুলভ মূল্যেই। অ্যান্টিক বা ভিন্টেজ ঘড়ির দাম পরবে ২০০০ থেকে ৩০০০ টাকার মতো। ছোটদের ঘরের জন্য মজার স্মাইলি ফেস বা তাদের ডেস্কে যদি মজার ওয়েট-লিফটার টেবিল ক্লক রাখতে চান তবে দাম পড়বে মাত্র ৫০০ থেকে ৮০০ টাকার মতো।

বাজারে ঘুরে ঘাঁটাঘাঁটি করে বেছে নিতে পারেন আপনার মনের মতো ঘড়িটা। তবে ঘড়ি কেনার সময় মাথায় রাখতে হবে, ডিজাইন যেমনই হোক ঘড়িতে যেন স্পষ্ট সময় বোঝা যায়। পুরান ঢাকা, গুলিস্তান, স্টেডিয়াম মার্কেট, ধানমণ্ডি, নিউমার্কেট, মিরপুর, গুলশান, উত্তরাসহ দেশের বড় বড় শপিংমলে এসব ঘড়ি কিনতে পাওয়া যায়। আকৃতি ও উপাদানের ওপর ঘড়ির দাম নির্ভর করে। আপনার রুচি ও সামর্থ অনুযায়ী যাচাই করে নিতে পারেন পছন্দের ঘড়িটি।

আরও পড়ুন

Advertisement (Adsense)