ঢাকা, বুধবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

৬টি মারাক্তক রোগের ওষুধ আঙুরের রস

স্বাস্থ্য ডেস্ক
৬টি মারাক্তক রোগের ওষুধ আঙুরের রস
সংগৃহীত : ছবি
Advertisement (Adsense)

আঙুর আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারি একটি ফল। এই আঙুর ফল যদি রস করে খাওয়া হয় তবে সেটা আমাদের শরীরের কতটা উপকারি। আঙুরে রয়েছে ভিটামিন কে, ভিটামিন সি, বি১, বি৬, খনিজ পদার্থ, ম্যাঙ্গানিজ ও পটাসিয়াম। আঙুরের রস যেকোনো রোগ কোষ্ঠকাঠিন্য, ডায়বেটিস, এজমা হৃদরোগসহ মারাত্মক রোগ প্রতিরোধে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। আঙুরের রস খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে জেনে নিন-
 

বার্ধক্য রোধ করতে

আঙুরের রস বার্ধক্য রোধ করতে সাহায্য করে। অর্থাৎ অল্প বয়সে বার্ধক্যের ছাপ পড়া বা চেহারা ভেঙে যাওয়া ইত্যাদি সমস্যা প্রতিরোধে আঙুরের রস সাহায্য করে থাকে। কারণ আঙুরে শক্তিশালী অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে। এছাড়াও আঙুরের বীজ ও খোসায় প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট রয়েছে। তাই দিনে এক বার করে আঙুরের রস খেলে বার্ধক্য রোধ হবে।

হার্টকে সুস্থ রাখতে

হার্টকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে আঙুরের রস। যদি হার্টের কোনো সমস্যা থাকে তবে আঙুরের রস খেতে পারেন। আর আঙুরের রস রাতের খাবারের পর খেলে বেশি উপকার পাবেন। আর এতে শরীরও অনেক সুস্থ থাকবে। যদি হার্টের সঙ্গে অন্য কোনো সমস্যা থাকে তবে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে খেতে হবে।

কোষ্ঠ কাঠিন্যের সমস্যা দূর করতে

কোষ্ঠ কাঠিন্যের সমস্যা দূর করতে পারে আঙুরের রস। কারণ এতে রয়েছে অর্গানিক এসিড, সেলুলোজ ও চিনি। তাই কোষ্ঠ কাঠিন্যের সমস্যা থাকলে আঙুরের রস খেতেই পারেন।

রক্ত সঞ্চালনে সাহায্য

রক্ত সঞ্চালনে সাহায্য করে আঙুরের রস। যারা রক্ত সঞ্চালনের ভারসম্যহীনতায় ভুগছেন তারা প্রতিদিন এক গ্লাস করে আঙুরের রস খেতে পারেন। আঙুরের রসে ফাইকোনিটেস রয়েছে। যা রক্ত সঞ্চালনে সহায়ক ও রক্তের ইনসুলিনের মাত্রা বৃদ্ধি করে থাকে। তাই রক্ত সঞ্চালন সঠিক রাখার জন্য আঙুরের জুস খাওয়া খুবই প্রয়োজন।

ক্যান্সার রোধ করতে

ক্যান্সার রোধ করতে পারে আঙুরের রস। আঙুরের রসে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ও অ্যান্টি ইনফ্লামেটরির মতো গুরুত্বপূর্ন উপাদান রয়েছে। যা অঙ্গ প্রত্যঙ্গের প্রদাহ দূর করতে সাহায্য করে। এ প্রদাহ ক্যান্সার রোগের কোষ বৃদ্ধি রোধ করতে সহায়ক। এ কারণেই আঙুরের জুস ক্যান্সার প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে থাকে।

মাইগ্রেনের সমস্যা

আঙুর ফল মাইগ্রেনের সমস্যা দূরে সরিয়ে দিতে সাহায্য করে। তাই এ ধরণের সমস্যা যাদের রয়েছে তারা আঙুরের রস খেতে পারেন। তাই প্রতিদিন আঙুরের জুস খাওয়ার অভ্যাস করতে হবে।

আরও পড়ুন

Advertisement (Adsense)