ঢাকা, বুধবার, ২০ নভেম্বর ২০১৯, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

নিয়মিত কম ঘুমালে যে সমস্যাগুলি হয়

স্বাস্থ্য ডেস্ক
নিয়মিত কম ঘুমালে যে সমস্যাগুলি হয়
সংগৃহীত : ছবি
Advertisement (Adsense)

প্রতি রাতে আপনার দরকার ৭ থেকে ৯ ঘণ্টার ঘুম। শতকরা ৪০ ভাগ লোক এর চেয়ে কম ঘুমায়। মাত্র এক রাত ঘুম কম হলেই আপনার শরীরে এর ক্ষতিকর প্রভাব পড়তে শুরু করে। যথেষ্ট ঘুম না হলে চোখ লাল হয়, গায়ের চামড়ার রঙ নষ্ট হয়। অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায়। তাই জেনে নিন  এক রাত কম ঘুমালে যে ৭টি ক্ষতি আপনার হবে।

যথেষ্ট ঘুম না ঘুমালে কী কী ক্ষতি হয়?
একরাত ঘুম কম হওয়া বা কিছু সময় ধরে ঘুম কম হওয়ার সমস্যাটি শুরুতে অল্প থাকলেও পরে তা বড় সমস্যায় রূপ নেয়। গবেষণায় দেখা গেছে, এ ধরনের ঘুম না হওয়ার পিছনে অনেক কারণের একটি হচ্ছে খাবার-দাবার। অতিরিক্ত ক্যালরি আছে এমন খাবার বা অতিরিক্ত শর্করার খাবার খেলে বা অস্বাস্থ্যকর খাবার খেলে এ ধরনের সমস্যা হতে পারে।

১৫ জন লোকের ওপর গবেষণা চালিয়ে দেখা গেছে মাত্র এক রাত ঘুম না হলেই মস্তিষ্কের কোষের ক্ষয় শুরু হয়। ১৭৪১ জন নারী এবং পুরুষের উপর গবেষণা চালিয়ে দেখা গেছে যারা ১০ থেকে ১৪ বছর ধরে ছয় ঘণ্টারও কম ঘুমান তাদের মধ্যে মারাত্মক ধরনের মৃত্যুহার বেশি থাকে।

তাছাড়া তাদের মধ্যে ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ সহ আরো অনেক রোগের হার বেশি।এক রাত কম ঘুমালে যে ৭টি ক্ষতি আপনার হবে

এক রাত কম ঘুমালে যে সমস্যা হয় :

  • ক্ষুধা বেড়ে যায় এবং আপনি বেশি খেতে শুরু করেন।
  • যে কোনো সময় দুর্ঘটনা ঘটার ঝুঁকির মধ্যে থাকেন আপনি।
  •  আপনি দেখতে যেমন আপনাকে তার চেয়ে খারাপ দেখায়।
  • ঠাণ্ডা-সর্দি লাগার আশঙ্কা বেড়ে যায়।
  • আপনার মস্তিষ্কের টিস্যু নষ্ট হওয়া শুরু হয়।
  • আপনি সামান্য কারণে ইমোশোনাল হয়ে যান।
  • আপনার স্মৃতিশক্তি হ্রাস পেতে শুরু করে।

একরাত ঘুম কম হওয়া বা অল্প সময়কাল ধরে ঘুম কম হওয়ার সমস্যাটি পরে গুরুতর হয়ে উঠতে পারে। এটি রূপ নিতে পারে নিয়মিত ঘুম কম হওয়া বা ঘুম না হওয়ার সমস্যায়। প্রাথমিক গবেষণায় দেখা গেছে, নিয়মিত ঘুম না হওয়ার কারণে ব্রেস্ট ক্যান্সারসহ অন্যান্য ক্যান্সারের ঝুঁকি বেড়ে যায়। আর নিয়মিত ঘুম কম হলে আপনার ওজন বেড়ে যেতে থাকে।

নিয়মিত কম ঘুমালে যে সমস্যাগুলি হয় :

  • স্ট্রোক করার ঝুঁকি চারগুণ বেড়ে যায় 
  • অবেসিটি রিস্ক বেড়ে যায়। ফলে তাড়াতাড়ি আপনি মোটা হতে থাকেন।
  • কোনো ক্যান্সারের ঝুঁকি বেড়ে যায়।
  • ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বেড়ে যায়।
  • হৃদরোগের আশঙ্কা বেড়ে যায়।
  • আপনার শরীরে শুক্রাণু কম উৎপন্ন হতে থাকে।
  • মৃত্যুর ঝুঁকি বেড়ে যায়।

আরও পড়ুন

Advertisement (Adsense)