ঢাকা, সোমবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

কি করলে দাঁত ভালো থাকবে ?

স্বাস্থ্য ডেস্ক
কি করলে দাঁত ভালো থাকবে ?
সংগৃহীত : ছবি
Advertisement (Adsense)

আজকাল ডেন্টিস্টদের কাছে যাওয়াটা খুবই খরচসাপেক্ষ হয়ে দাঁড়িয়েছে এবং এর জন্যে তাদের দোষারোপও করা যায় না| ডেন্টিস্টদের কাছে যাওয়া এড়ানোর সবচেয়ে ভাল উপায় হল, আমাদের মুক্তের মতো সাদা দাঁতের যত্নের জন্য প্রাকৃতিক উপায় খুঁজে বের করা| যে সব খাবার দাঁত নোংরা করে এবং যে সব পানীয় দাঁত পচিয়ে দেয় সেইসব খাবার এড়িয়ে চলা, দাঁতের দেখাশোনার একটি সূচনা| এই দুটি প্রধান ক্ষতিকারক উপাদান ছাড়াও আরও অন্য জিনিস আছে যা দাঁত নষ্ট করে| বিশেষজ্ঞরা বলে থাকেন, যেই ভুলটি দাঁতকে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত করে সেটি হল ঠিক করে দাঁত না মাজা|

দাঁতের জন্য শক্ত ব্রাশ ব্যবহার করলে মাড়ির রক্তপাত ঘটে এবং বিভিন্ন রকম মৌখিক রোগ দেখা দেয়| আমরা ভুলগুলো শুধরে নিলে দাঁতের ক্ষতি বাঁচাতে পারব, আর ডেন্টিস্টদের খাচ্ছে যাওয়াটাও কমিয়ে ফেলতে পারব| এখানে তেমন কিছু ভুলের কথা নিয়ে আলোচনা করব যা দাঁতের ক্ষতি করে, আসুন দেখে নেওয়া যাক কি করে মুখের ভাল খেয়াল রাখা যায়|

টুথপিক আমাদের মধ্যেই অনেকেই টুথপিক দিয়ে দাঁত খোঁচাতে ভালোবাসেন| এই পিকগুলো বিভিন্ন আকার এবং গন্ধে পাওয়া যায়| কিন্তু, আপনি কি জানেন এই টুথপিক দাঁতের মধ্যে ঘর্ষণ ঘটায় যার ফলে মাড়ির সমস্যা দেখা দেয়| এটি একটি ভুল যা আমাদের দাঁতের ক্ষতি করে|

ফ্লসিং খাবার পর দাঁতকে ফ্লসিং করে পরিষ্কার করা একটি ভালো অভ্যাস| যদি আপনি না করে থাকেন, তাহলে শুরু করে দিন| খাবারের টুকরো যা দাঁতের মাঝখানে থেকে যায় এবং যা টুথব্রাশ দিয়ে দূর করা যায় না, দাঁতের ফ্লসের মাধ্যমে তা সহজেই দূর করা সম্ভব|

জিভ পরিষ্কার রাখুন একটি টাং ক্লিনার বা ব্রাশ দিয়ে জিভের ময়লা ঘষে তোলা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ| আপনি যদি এটা এড়িয়ে যাওয়ার ভুল করেন তাহলে অবস্যই আপনার মুখে দুর্গন্ধ হবে|

কুলকুচি খাবার পরে কুলকুচি করার স্বভাব আমাদের মধ্যে অনেকেই এড়িয়ে যান| এটি একটি অন্যতম জিনিস যা দাঁত নষ্ট করে| যখন আপনি গার্গেল এবং কুলকুচি করেন, তখন খাদ্য কণাগুলো দাঁতের ফাঁক থেকে বেড়িয়ে আসে এবং ডেন্টাল ক্যাভিটিজ হওয়ার থেকে প্রতিরোধ করে| এছাড়াও এটি মাড়ির রোগ দূরে রাখতে সাহায্য করে| ক্যাভিটিজ ক্যাভিটিজ খুবই সাধারণ জিনিস তাই এটি নিয়ে চিন্তিত হওয়ার কোন প্রয়োজন নেই| তবুও, আপনি যদি আপনার দাঁতে অল্প ক্যাভিটিজ লক্ষ্য করেন তাহলে তাকে অবহেলা করবেন না| দাঁতের ডাক্তার দেখিয়ে এটিকে পরিষ্কার ও পূরণ করে নিন| এই ভুলটি শুধরে নিন দেখবেন আপনার দাঁতের কোনো ক্ষতি হবে না| ডেন্টাল ভিজিট আমরা একটু আগেই দেখলাম যে, দাঁতের ডাক্তারের কাছে যাওয়াটা অত্যন্ত ব্যায়বহুল, কিন্তু এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ যে আমরা অন্তত একবার তার কাছে যাই, যাতে ছয় মাসে একবার আমরা দাঁতের জমা দন্তমলকে সরাতে পারি এবং ক্যাভিটিজের মাত্রা পরীক্ষা করতে পারি|

ঘষে তুলে ফেলতে সক্ষম টুথপেষ্ট বা টুথ পাউডার যে সব টুথপেষ্ট বা টুথ পাউডার ঘষলে দাঁত চকচকে ও সাদা হয়ে যায়, সেই সব ব্যবহার করা হল আপনার আরেকটি ভুল| এটি যেমন আপনার দাঁতকে উজ্জ্বল দেখানোয় সাহায্য করে, তেমন এটি দাঁতের এনামেল নষ্ট করে দেয়| সঠিক টুথব্রাশ বাছুন আপনার টুথব্রাশের মাথাটা কি লম্বা হয়ে গেছে শক্ত ব্রিসেলসের জন্য? যদি তা হয়, শীঘ্র সেটিকে পাল্টে ফেলুন কারণ এই ধরণের ব্রাশ, দাঁত ও মাড়ির জন্যে হানিকারক| ছোট মাথার ও নরম ব্রিসেলসের ব্রাশ ব্যবহার করা সবচেয়ে ভাল যাতে আমরা আমাদের দাঁত ভাল ও পরিষ্কার রাখতে পারি|

ডিনারের পর রাত্রে খাবার পরে ব্রাশ করা আপনাদের মধ্যে কজন কঠোরভাবে মেনে চলেন? বিশেষজ্ঞরা বলেন, যে খাবার পর মুখে আটকে থাকা খাবারের টুকরোগুলোকে, মুখের ব্যাকটেরিয়া খাবারে থাকা সুগারগুলোকে, সুগার এসিডে পরিণত করে দেয়| আপনি যখন ব্রাশ করা এড়িয়ে যান, সেই সুগার অ্যাসিডগুলো আপনার দাঁতের এনামেলের ওপর আক্রমণ করে এবং আপনার মুক্তের মতো সাদা দাঁতকে একটি হলদেটে ছোপে পরিণত করে|

ওহ, আপনি কি জানেন  যে একটি টয়লেটের ফ্লাশ, প্রায় দশ ফুট দূরে রাখা আপনার টুথব্রাশের ওপর ব্যাকটেরিয়া ছড়িয়ে দিতে পারে| এটি সবচেয়ে খারাপ জিনিস যা আপনার দাঁত নষ্ট করতে পারে| ব্রাশ কে বাথরুমের বাইরে রাখুন অথবা টয়লেট লিড বন্ধ রেখে ফ্লাশ করুন|

আরও পড়ুন

Advertisement (Adsense)